কাজে ফাকি দিতে সবার মজা লাগে। অনেকে আবার এটিকে খুব ক্রেডিটের ব্যপার বলে মনে করেন। ছোট বেলা থেকে আমার পড়তে ভাল লাগতো, এখনো লাগে। আমাদের দেশে সবাই কত কমে পড়ে তা জাহির করার জন্য ব্যস্ত থাকে। কম পড়া মানে ব্রেন শার্প আর স্মার্ট এবং গড গিফটেড ট্যালেন্ট। তাদের ক্লাস করা লাগে না আর উল্টো দিকে আমি নটরডেম কলেজে এইচএসসি পড়ার সময় একদিন ক্লাসও মিস করিনি বলে সার্টিফিকেট পেয়েছিলাম।

সুতরাং পরিচিত কেউ কেউ প্রমান করার চেষ্টা করত যে আমার ব্রেন ভাল না। আমি বোকা ছিলাম বলে মন খারাপ হত কিন্তু কি আর করার আমার পড়তে খুব ভাল লাগতো। এখনো পারলে সারা দিন রাত ইন্টারনেটে পড়তে ভাল লাগে। পারি না পারি ভাল লাগে।

যাই হোক যারাই আমাকে বলেন যে আমার লেখা পড়ে ভাল লাগে, অনুপ্রাণিত বোধ করেন তাদের প্রতি পরামর্শ, অনুরোধ, আদেশ, নির্দেশ যাই বলেন না কেন হল এই যে যাই ভাল লাগে তাই মন দিয়ে করেন, বেশী করে করেন, সময় দিয়ে চেষ্টা করেন। তাহলে ব্যর্থতা বলে কোন জিনিস আপনার জীবনে স্থায়ীভাবে থাকবে না। পড়ে গেলেও উঠে দাঁড়াবেন এবং আরও বড় হবেন।

জীবন থেকে শেখা কথা গুলো বললাম এতক্ষণ। যারা বয়সে তরুন ২৫ এর নিচে বয়স যাদের তাদের প্রতি অনুরোধ অন্যদের কথায় মন খারাপ করবেন না, যা করতে ভাল লাগে করেন, মন দিয়ে হৃদয় দিয়ে করেন- বেআইনি, অনৈতিক কিছু না হলেও হল।

অন্যদের কথায় মন খারাপ করবেন না