আপন মনে আপন পথে চলুন

২০১৫ সালে একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিশ শিখেছি- নিজের মত করে পথ চলা। ই-ক্যাব নিয়ে প্রায় সারা বছর ধরে ফেইসবুকে আক্রমনের শিকার হয়েছি নানা জনের থেকে। প্রথম প্রথম বেশ রাগ হত কারণ জীবনের সব সুখ শান্তি আরাম এক পাশে সরিয়ে ই-ক্যাবের জন্য চেষ্টা করে গেছি। সারা বছর ধরে প্রতি সপ্তাহেই দুই তিনটি করে পোস্ট এসেছে ই-ক্যাব আর আমাকে খোঁচা মেরে। অনেক ক্ষেত্রে নোংরামির সীমা ছাড়িয়ে গেছে। সমালোচনা এক জিনিশ আর ব্যক্তি আক্রমণ এবং নোংরামি অন্য জিনিশ।

যাই হোক প্রথমদিকে অনেক রাগ হত। কিন্তু ধিরে ধিরে বুঝতে পারি যে এসব নিয়ে যদি এক মিনিট সময় ব্যয় করি তবে তা হবে জীবনের চরম অপচয়। তাই যে আমি বেশ কড়া, গম্ভীর, রাগি এবং লড়াকু মানুষ সেই আমি শুরু করলাম উল্টা পথে চলার। এভাবে একটু একটু করে চেষ্টা করে যাচ্ছি এবং একটু একটু করে বদলাচ্ছি। এখন আর অন্যদের পোস্ট আমার গায়ে লাগে না একটুও।

আমি চেষ্টা করছি নিজের মতে নিজের পথে চলতে। ব্যক্তিগত জীবনে তেমন বেশি মানুষের সঙ্গে আমার ভেজাল নেই। যাদের পছন্দ হয় না তাদের ছায়া মাড়াই না। ফেইসবুকে যত ভেজাল তা ই-ক্যাব নিয়ে এবং ই-ক্যাব এর প্রেসিডেন্ট হবার কারণে। আর এখানে সবাইকে সন্তুষ্ট করা সম্ভব নয়।

আর একটা ব্যপার লক্ষ্য করেছি। একজন ভেজাল করলে আরও ৯ জন আমাকে পছন্দ করে শ্রদ্ধা করে যে কোন অনুষ্ঠানে গিয়ে তা বুঝতে পারি। এমনকি রাস্তা ঘাটেও বুঝতে পারি। তাই একজনের ভেজাল নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে অন্য ৯ জনের শ্রদ্ধা নিয়ে মাথা ঘামানো শিখে গেছি।

সবচেয়ে বড় কথা হল ই-ক্যাব ব্লগ, স্কাইপ আড্ডা, ফেইসবুক গ্রুপ, বাস্তব জীবনে আড্ডা এসবের পেছনে এত সময় দিয়েছি নিজের মনের বিশ্বাস থেকে, নীতি বোধ থেকে। চেষ্টা করেছি অনেককে একত্রিত করতে, চেষ্টা করেছি তরুণদের সামনে এগিয়ে নিতে। হয়তো অনেক সময় ব্যর্থ হয়েছি, কিন্তু লেগে ছিলাম, চেষ্টা করে গেছি এবং এক বছর পর আজকে অনেক মানুষকে দেখতে পাচ্ছি হৃদয় দিয়ে আমার সঙ্গে আছে।

গত এক বছরের নিজের এই সব অভিজ্ঞতা থেকে বুঝতে পারছি যে আপন মনে আপন পথে চলা শিখতে হবে। এর কোন বিকল্প নেই। আর দরকার আপনার চারপাশে যাদের সঙ্গে মিশবেন তাদের নিয়ে একত্রে পথ চলা।

আপনারা অনেকেই আমার সঙ্গে ছিলেন এবং আছেন। আমি এখন চাই আমার সঙ্গে আপনাদের যেমন ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে উঠেছে ঠিক তেমনি নিজেদের মধ্যেও ঘনিষ্ঠতা গড়ে উঠুক। বছরের শুরুতে এই স্বপ্নকে অসম্ভব বলে মনে হত কিন্তু এখন আর তা মনে হয় না।

সঙ্গে থাকুন সবাই না হলেও কেউ কেউ।

28 December 2015

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *