ই-ক্যাবের আজ ১০০ দিন পূর্ণ হয়ে গেল। ১০০ দিন আগে প্রেস ক্লাবে প্রেস কনফারেন্সে একটা ঘোষণা এসেছিল ই-ক্যাব সভাপতি হিসেবে আমার থেকে। একটা স্বপ্নের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। সেদিন মনে হয় আমাদের এই ফেইসবুক গ্রুপে মাত্র ২০০-৩০০ সদস্য ছিল। পেইজে লাইক ছিল ৫০০ এর মত। গ্রুপের পোস্ট ছিল ১০-১৫ টার মত এবং স্কাইপে কোন আড্ডা ছিল না। তখনো ব্লগ শুরু হয়নি।
১০০ দিনে অনেক কিছুই করতে চেষ্টা করেছি এবং আমাদের গ্রুপে এখন প্রায় ২৬৫০ জন সদস্য, পেইজের লাইক প্রায় ২৮৫০ এবং ব্লগে ৭৫ টি আর্টিকেল রয়েছে। প্রতি রাতে স্কাইপে ১০ টা থেকে নাফিজ ভাই, আফজাল ভাই, টিপু সুলতান ভাই, লিটন ভাই, মাসুম ভাই, আনোয়ার ভাই, মেহেদী ভাই, রাজু ভাই, সুজন ভাই, আসিফ ও আমি সহ ১৫-১৬ জন যে আড্ডা দেই তা কখনো কখনো ভোর ৫ টা পর্যন্ত গড়ায়।
গতকাল রাতে ৩ জন এসেছিলেন তাদের সমস্যা নিয়ে খালেদ ভাই, রাশেদ ভাই ও শুভ ভাই। তিন জনই মনে হয় বেশ খুশি মনে রাতে ঘুমাতে পেরেছেন কারন তাদের সমস্যা নিয়ে অনেকক্ষণ আলোচনা হয়েছে এবং বেশ ভাল কিছু উপদেশ, টিপস ও পরামর্শ তারা পেয়েছেন।
আমাদের বেশীরভাগ উদ্যোক্তা বয়সে তরুন এবং তাদের ছোট কোম্পানি। আশা করি ই-ক্যাব যত এগিয়ে যাবে তারাও এগিয়ে যাবেন। এই ১০০ দিনে আমাদের এই গ্রুপ, ব্লগ, পেইজ এবং স্কাইপ আড্ডা থেকে অনেকেই অনেক বিষয়ে সুন্দর পরামর্শ পেয়েছেন সাহায্য পেয়েছেন। অনেকে সাহস পেয়েছেন, সমস্যার সমাধান পেয়েছেন, সামনে এগিয়ে যাবার দিক নির্দেশনা পেয়েছেন। সবই সম্ভব হয়েছে আপনাদের সক্রিয় সহযোগিতা ও অংশগ্রহণের ফলে।
প্রথম দিকে অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করতো যে ই-ক্যাবের জন্য ১৫-১৬ ঘণ্টা সময় দিয়ে আমার কি লাভ বা আমার কি ধান্দা? তাদের উত্তর দিতাম যে আমার উদ্দেশ্য একটাই- ই-ক্যাবের মাধ্যমে বাংলাদেশে ই-কমার্স বিকশিত হোক। আমার স্বপ্ন ছিল গল্পের সেই রিকশাচালকদের সমিতির মত সবাই সবাইকে সাহায্য করার চেষ্টা করবে। সবাই হয়তো এগিয়ে আসেনি। কিন্তু যারাই একটু এগিয়ে এসেছে তাদের প্রত্যেকে একটু হলেও উপকৃত হয়েছে। যা দিয়েছে তার থেকেও বেশি উপকার পেয়েছে আমাদের এই প্ল্যাটফর্ম থেকে।
প্রথম দিকে আমার এ ধরনের কথা অনেকেই বিশ্বাস করতো না এবং আড়ালে আবডালে উলটা পাল্টা কথা বলতো আমাকে নিয়ে। কিন্তু ১০০ দিন পর অনেকেই আমার কথা মেনে নিয়েছে। আসলেই আমরা এমন একটা প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলতে প্রায় পেড়েছি যেখানে অনেকেই উপকৃত হচ্ছে।
ই-কমার্সে যারা নতুন তাদের অন্য সেরা তথ্য ভাণ্ডার আমাদের ব্লগ, এই গ্রুপ এবং স্কাইপ আড্ডা। এই তিন দিকেই আমরা অনেক বেশি শক্তিশালি হয়েছি। কিন্তু এখনও আমাদের কিছু দিকে অনেক ঘাটতি রয়েছে। ই-কমার্স নিয়ে প্রচারনা, সেমিনার, ওয়ার্কশপ, মেলা, গবেষণা, মিডিয়া পাবলিসিটি- এসব দিকে আমরা পিছিয়ে আছি। কিন্তু এজন্য আপনাদের অনেকের সাহায্য লাগবে। আপনারা যতটা এগিয়ে আসবেন ততই এসব দিকে একটু একটু করে অনেক কিছু করা যাবে।

February 2015

ই-ক্যাবের আজ ১০০ দিন