এক সপ্তাহ, এক মাস, এক বছর

স্কাইপ আড্ডাতে নিয়ম হল নতুন যে কাউকে প্রথম ৭ দিন শুনতে হয় এবং তারপর কথা বলার সুযোগ দেয়া হয়। এর কারণ হল ইংরেজিতে কথা বলা নিয়ে অনেক জড়তা কাজ করে আমাদের অনেকের মধ্যে এবং আপনি যদি প্রথমেই ধাক্কা খান সবার সামনে চেষ্টা করতে গিয়ে তাহলে তা থেকে বের হয়ে আসা কঠিন। অপর দিকে যদি ৭ দিন শুধু শুনতে থাকেন এবং দেখেন যে একের পর এক আপনার মতই সাধারণ মানুষ ইংরেজিতে গল্প করছে ২-৩ ঘণ্টা তখন এক ধরনের বিশ্বাস ও সাহস জন্মায়। বলতে গেলে একদম কেউ ইংরেজিতে ৫ মিনিট ঠিক মত কথা বলতে পারতো না।
এক মাস স্কাইপ আড্ডাতে লেগে থাকলে যে কেউ অন্তত ২ ঘণ্টা ইংরেজিতে কথা বলতে পারেন- এটি অন্তত ১০০ জনের বেলায় প্রমানিত। তাদের কোন টাকা লাগে নি, কোন বই পড়া লাগেনি- বাড়তি কিছুই করা লাগে নি। কেউ যদি এক বছর এভাবে স্কাইপ আড্ডাতে লেগে থাকে তাহলে ইংরেজিতে কথা বলা পুরাই অভ্যাসে পরিনত হয়ে যাবে যা সারা জীবন কাজে দেবে।
ঠিক তেমনি কেউ যদি এখানে দিন রাত এক মাস কমেন্ট করে তাহলে ইংরেজি লেখা নিয়ে ভয় লজ্জা ও সংকোচ দূর হয়ে যাবে। কেউ যদি তিন মাস সিরিয়াস ভাবে এভাবে লেগে থাকে তবে ইংরেজি লেখার ক্ষেত্রে এক ধরনের দক্ষতা হয়ে যাবে। আর এক বছর লেগে থাকলে পত্রিকা, ম্যাগাজিন ওয়েবসাইটে লেখার এবং প্রফেশনাল কন্টেন্ট রাইটার হবার মত অবস্থায় চলে যাবার কথা। তবে একটাই শর্ত আছে- প্রতিদিন সময় দিয়ে নিয়মিত লেগে থাকা।
যারা এখন লেখাপড়া করছেন তাদের প্রতি পরামর্শ হল আমাদের সঙ্গে এক বছর লেগে থাকুন। প্রথম দিকে সময় বেশি দেয়া লাগবে কিন্তু ৩ মাস পরে প্রতিদিন ২ ঘণ্টা সময় দিলেই হবে। এক বছর পরে অনেক অনেক দক্ষ হবেন ইংরেজিতে এক টাকাও খরচ না করে। আমি জানি পার্থ প্রতিম মজুমদার ভাইয়ের মত কিছু মানুষ লেগে থাকবেন এবং এক সময় তারা সারা বাংলাদেশে পরিচিত হবেন।
এখন সিদ্ধান্ত আপনার- আপনি কি এক সপ্তাহ, এক মাস, তিন মাস নাকি এক বছর থাকবেন এখানে।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *