জীবনে যখন একটি দরজা বন্ধ হয়ে যায়, তখন আরেকটি দরজা খুলে যায়, কিন্তু বন্ধ হয়ে যাওয়া দরজাটির দিকে আমরা এত বেশি সময় ধরে তাকিয়ে থাকি যে খুলে যাওয়া দরজাটি আর দেখতে পাই না।

সুন্দর একটি উক্তি করেছেন আলেক্সান্ডার গ্রাহাম বেল। কথাটি অনেক সত্য। তবে সমস্যা হল জীবনে আমরা খুব কম সময় এ উক্তিটি মানতে পারি। প্রেমে বিচ্ছেদ হলে অনেক কষ্ট পাই, তার থেকেও বড় কথা আমরা ভেঙ্গে পরি। এভাবে পরিক্ষায় ফেল করলে, চাকুরি চলে গেলে, ব্যবসায় লস খেলে- এসব কিছুইতেই আমাদের মন ভেঙ্গে যায় এবং আমরা হাল ছেড়ে দেই। অথচ চেষ্টা করে গেলে হয়তো আর ৩ মাস পর বা ৬ মাস পর অনেক ভাল কিছু হতে পারে তা আমরা স্বপ্নেও ভাবতে পারি না।

তরুন বয়সে এ ধরনের সমস্যায় পড়া খুব সহজ এবং ভেঙ্গে পড়া আরও সহজ। ড্রাগ নেবার একটি বড় কারণ হল হতাশা এবং ব্যর্থতা। অনেকে লেখাপড়া ছেড়ে দেন, অনেকে আবার আত্বহত্যা করার চেষ্টা করেন। শুধু বাংলাদেশ নয় বরং সারা বিশ্বে এটি কমন সমস্যা। এর কারণ হল আমরা মানুষ এবং মানুষের মধ্যে আবেগ থাকে। তাই আবেগ আমাদের যেমন স্বপ্ন দেখায়, আনন্দ দেয় ঠিক তেমনি হতাশাও নিয়ে আসে।

আমার পোস্ট পরলে ম্যাজিকের মত সব হতাশা দূর হয়ে যাবে এমন টা কিন্তু নয়। তবে বারবার একই মেসেজ পেলে তা এক সময় আপনি একটু একটু করে বিশ্বাস করা শুরু করবেন। আমার পোস্ট গুলোতে আমি তাই বারবার বলি লেগে থাকেন, চেষ্টা করেন, পরে গেলেও উঠে দাঁড়ান।

একদিকে এ ধরনের কথা বারবার শোনার দরকার, নিজেকে বলার দরকার।

আবারো বলছিঃ

জীবনে যখন একটি দরজা বন্ধ হয়ে যায়, তখন আরেকটি দরজা খুলে যায়, কিন্তু বন্ধ হয়ে যাওয়া দরজাটির দিকে আমরা এত বেশি সময় ধরে তাকিয়ে থাকি যে খুলে যাওয়া দরজাটি আর দেখতে পাই না।

লেগে থাকেন, চেষ্টা করেন, পরে গেলেও উঠে দাঁড়ান