ভাল মানুষের সঙ্গে পথ চলতে গিয়ে অনেক বেশি কষ্ট হবে

কাউকে উদ্দেশ্য করে এই পোস্ট নয়। জীবন থেকে নেয়া, জীবনে দেখা এবং জীবন থেকে শেখা উপলব্ধি আর পর্যবেক্ষন মাত্র। একজন ভাল মানুষের সঙ্গে পথ চলতে গিয়ে অনেক বেশি কষ্ট হবে, একজন খারাপ মানুষের সঙ্গী হবার তুলনায়। কারন যাই হোক না

আশা নিয়ে স্বপ্ন নিয়ে প্রচণ্ড রৌদের মধ্যে

আশা নিয়ে স্বপ্ন নিয়ে প্রচণ্ড রৌদের মধ্যে এক ঘণ্টা হাটলেও কষ্ট হয় না, মনে এক ধরনের আনন্দ থাকে। অন্যদিকে দুঃখ আর হতাশা নিয়ে ১০ মিনিট হাঁটলেও খারাপ লাগে, অসহায় লাগে। আমরা মানুষ এবং সুখ দুঃখ মিলিয়েই জীবন। কিন্তু খারাপ সময়ে

সার্চ ইংলিশ কোন অ্যাসোসিয়েশান নয়

ই-ক্যাব নিয়ে গত ২৬ মাসে অনেক খারাপ সময় পার হয়েছি, ভেজাল পার হয়েছি প্রায় প্রতিদিন না হলেও প্রতি সপ্তাহে একটা দুইটা। ই-ক্যাবের পালটা কিছু করার চেষ্টা হয়েছে ১০-১১ বার। সেই তুলনায় সার্চ ইংলিশে কোন ভেজাল নেই। পালটা কিছু করার চেষ্টা

এই বছর আপনি ভাল কিছু পারেন নি

আমরা সব সময় ছুটতে ভালবাসি। পাশ করে তারপর চাকুরী হচ্ছে না কেন- সারা জীবন কি বেকার থাকতে হবে। আপনি মেয়ে হলে বিয়ে করছেন না কেন, আপনার কি বিয়ে হবে না আর। পরিবার, আত্মীয়, প্রতিবেশি, বন্ধু বান্ধব সবাই আপনার মঙ্গল কামনায়

ভাল কিছু হয় তার বড় উদাহরণ ই-ক্যাব

ই-ক্যাবের এজিএমে আজকে বেশ কয়েকজন আমাকে বলেছেন যে লেগে থাকলে যে ভাল কিছু হয় তার বড় উদাহরণ ই-ক্যাব এবং ই-ক্যাবের এই সাফল্য দেখে তারা অনুপ্রাণিত। আগামি বছর এই সময়ে ই-ক্যাব অনেক বড় হবে বলে আমি আশাবাদী। আড়াই বছর ধরে যে

চালাকি করে বা শর্ট কাটে কিছু করতে গেলে তা ফাঁপা হয়

২০১৬ সালে অনেক পরিশ্রম করেছি ই-ক্যাব আর সার্চ ইংলিশ নিয়ে। প্রতিদিন চেষ্টা করেছি, কষ্ট করেছি, যতটা সম্ভব সময় ও শ্রম দিয়েছি। চেষ্টা করেছ ফাঁকি না দিয়ে, চালাকি না করে সৎ ভাবে পরিশ্রম করতে। ই-ক্যাব আজ খুব ভাল করে প্রতিষ্ঠিত এবং

আমি জীবনের প্রায় সব কিছু স্যাক্রিফাইস করি এবং হারাই

২০১৫ সালের জানুয়ারী আর ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসের পোস্ট গুলো পড়লাম এতক্ষণ। ২০১৫ সালে আমার ফেইসবুকের প্রোফাইলে মাত্র ১০০০ ফ্রেন্ড ছিল এবং তখন বেশিরভাগ পোষ্টেই ২০-২৫ টি লাইক আসলেই মনে হয় আমি খুব খুশি হতাম। তেমন কমেন্ট আসতো না। কিন্তু

লেখার শক্তি আর প্রভাব আমি দেখেছি গত ২ বছরে

আমার এই প্রোফাইলে, সার্চ ইংলিশ এবং ই-ক্যাব গ্রুপে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ আমার লেখা গুলো পড়েন। একজন লেখকের কাছে এর থেকে বড় আনন্দের আর কি হতে পারে। আমি প্রতিদিন লিখি একদম বছরের ৩৬৫ দিন। প্রথম দিকে অনেকের কাছে পাগলামি বলে

যে দুটো জিনিশ খুব সাহায্য করে

আমাদের জীবনে নানা ধরনের সমস্যা থাকে। তার মধ্যে হতাশা অনেক বড় একটি সমস্যা এবং আসলে এর কোন চিকিৎসা নেই। আপনি নিজে না চাইলে কেউ আপনার মন ভাল করতে পারবে না। যদিও বাংলাদেশ কিছুটা গরীব দেশ বলে আমরা এর জন্য টাকা

ভেজাল ছাড়া এই বছরটা শুরু করতে পেরে

ভেজাল ছাড়া এই বছরটা শুরু করতে পেরে মনে অনেক শান্তি পাচ্ছি। একদিকে ই-ক্যাবের বিরুদ্ধে আক্রমন শেষ আর আমি নিজেও ফালতু কথাকে সামান্যতম পাত্তা না দিয়ে কাজ করা শিখে গেছি। এখন কাজ করতে চাই, লিখতে চাই, গবেষণা করতে চাই। অনেক ভাল

ভাল লাগে নতুন কিছু করার স্বপ্ন দেখতে

ভাল লাগে নতুন কিছু করার স্বপ্ন দেখতে, চিন্তা করতে, চেষ্টা করতে এবং নিয়মিত ব্যর্থ হয়েছি জীবনে। আমার ব্যর্থতার পাল্লা খুবই ভারী। এখন আর খারাপ লাগে না বরং বুঝতে পারি যে প্রতিবার একটু একটু করে এগিয়ে যাই। পার্থ (এস এম মেহদি

ভাল হওয়া অবশ্যই ভাল তবে ভাল মানুষের সঙ্গে

আমাদের অনেকের জীবনের খুব কমন বা মিলে যাওয়া একটি ব্যপার। তাই দয়া করে এই পোস্টকে কেউ ব্যক্তিগতভাবে নেবেন না। আপনি যখন ক্রমাগত কারো জন্য এক তরফা ভাবে করে যাবেন তা সেটি ভালবাসা বা বন্ধুত্ব, অফিসের কলিগ বা প্রতিবেশি বা সহপাঠী

A Double-Dyed Deceiver :Translation in Bangla | Razib Ahmed

Story Name   :  A Double-Dyed Deceiver (এ ডাবল ডাইড ডিসিভার) Written  by    :  O. Henry লিয়ানো কিডের জন্য লোরেডোতে এক সমস্যা শুরু হয়েছে । মেক্সিকানদের হত্যার জন্য তাঁকে আটকে রাখা উচিত , কিন্তু ছেলের বয়স মাত্র বিশ বছর