দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া ইকমার্সের জন্য নতুন বাজার হিসেবে পরিণত হয়েছে । সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম, মিয়ানমার, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া সহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর অনলাইন শপিং এর পরিধি বেড়েই চলছে ; বড় বড় আন্তর্জাতিক অনলাইন বিক্রেতাদেরকে এই বাজার আকর্ষণ করছে । সৃজনশীল অনেক ইকমার্স স্টার্টআপ , টেকনোলজি এই এলাকায় গড়ে উঠেছে ; যা প্রথাগত বিজনেসের জন্য হুমকিস্বরুপ হয়ে দাঁড়িয়েছে । এই পোস্টে , আমি ২০১৭ সালের সাতটি দেশের ইকমার্স প্রবাহের চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করবো ।

ইকমার্স প্রবাহ ২০১৭ নিয়ে আলোচনা করার আগে , দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ইকমার্স মার্কেটে বর্তমানে কি অবস্থা তা একটু জেনে আসা যাক্‌ । এইখানে এই রিপোর্টটি ২০১৬ সালে প্রকাশিত হয়েছিল ।

Priceza.com study

ব্যাংকক ভিত্তিক শপিং সার্চ ইঞ্জিন এবং মুল্য তুলনাকারী ওয়েবসাইট Priceza.com ক্রেতাদের পছন্দ এবং আচরন নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে । এই রিপোর্টতে ছয়টি দেশের উপর সমীক্ষা চালানো হয়েছিল , থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ফিলিপাইন এবং ভিয়েতনাম । Priceza ২০১৬ সালের ১লা জানুয়ারির থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ১৩০ মিলিয়ন ক্রয়কৃত প্রোডাক্টের উপর জরিপ চালিয়ে এই গবেষণা করা হয় ।

জানুয়ারি থেকে অক্টোবর , Priceza মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম এ 7 মিলিয়ন বেশী সেশন রিপোর্ট করে । এই সেশনে দেখা গিয়েছে , ইকমার্সের বৃদ্ধি ২৪৫% বেড়ে গিয়েছে । থাইল্যান্ড , ইন্দোনেশিয়াতে সবচেয়ে বেশী ইকমার্সে সেক্টর বেশী বৃদ্ধি পেয়েছে ।

[নোটঃ   এইখানে কয়েকজাগায় সেশন শব্দটা পাবেন । গুগল এনালাইটিক্স বা যে কোন এনালাইটিক্সে প্রতিটি সেশন ৩০ মিনিট করে । কোন সাইটে ইউজার কোন কোন পেইজ ভিজিট করলো , কতক্ষন পেইজে থাকলো , কতজন ইউজার সাইট প্রবেশ করলো এই ত্রিশ মিনিটের উপর ভিত্তি করে হিসাব করা হয় । আমাদের যেমন পরীক্ষা হলে ২ ঘণ্টা সময় দেয়া থাকে । এই দুই ঘণ্টায় উপর ভিত্তি করে প্রশ্ন সাজানো হয়ে থাকে । ঠিক তেমনি এনালাইটিক্সে হিসাবটা ৩০ মিনিটের উপর ভিত্তি করে । এখন ধরুন আমি সেশন গোনা শুরু করলাম , প্রথম ৩০ মিনিটে একটা ভিজিটর আসলো । তিনি ২৫ মিনিটের মাথায় আপনার সাইটে আরেকটি পেইজ ভিজিট করলো ,তারপর আরেকটা , এইভাবে মোট ৫টা পেইজ ভিজিট করলো । তার অর্থ এইখানে সেশন এক , পেইজভিউ ৫টি। কিন্তু এখন প্রথম সেশনে এসে ভিজিটর আপনার হোম সাইটে এসে কিছুই করলো না । কিন্তু ৩১ মিনিটের মাথায় সে একই সাইটের আরেকটি পেইজে গেলো । তার অর্থ সেশন 2 । ]

থাইল্যান্ড
Priceza থাইল্যান্ড 68 মিলিয়ন সেশনে ১৩০ মিলিয়ন পেইজভিউ হয় ।
এগুলোর মধ্যে 63.27% ভিজিটর আসে মোবাইল ডিভাইস থেকে , 29.98% আসে ডেক্সটপ থেকে ; 6.75% আসে ট্যাবলেট পিসি থেকে ।

১৮ থেকে ৪৪ বছরের মধ্যে 55.2% পুরুষ এবং 44.8% মহিলা ।
ইন্দোনেশিয়া

১০ মাসের বেশী 42 মিলিয়ন সেশনে 62 মিলিয়ন পেইজভিউ হয় ।

70.92% আসে মোবাইল থেকে , 25.14% আসে ডেক্সটপ থেকে ; 3.94% আসে ট্যাবলেট পিসি থেকে ।
১৮ থেকে ৪৪ বছরের মধ্যে 63.2% পুরুষ এবং 36.8% মহিলা ।

এই চার্টে এই ছয়টি দেশে কোন আইটেম কত বেশী বিক্রি করা হয়েছে তার একটা জরিপ দেয়া হয়েছে ।

79c7402e-798f-4122-b817-4ef84f7792e3-large

গত বছর , Bain & Company, গুগলের সাথে এক পার্টনারশিপে সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন এবং ভিয়েতনামে ৬০০০ ক্রেতাদের উপর এক সমীক্ষা
চালানো হয়েছিল । এই রিপোর্টে দেখা গিয়েছে , দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের মাত্র 3% ইকমার্সে বেচাকেনা হয় । চারভাগের একভাগ মাত্র ১৬ বছরের উপর ক্রেতাদের দ্বারা ক্রয় করা হয়ে থাকে ।
১৫০ মিলিয়ন লোক প্রোডাক্ট নিয়ে অনলাইন সার্চ করে বিক্রেতার সাথে কথাবার্তা করে থাকে । তাদের মধ্যে ১০০ মিলিয়ন অনলাইন থেকে ক্রয় করে থাকে ।

Google-SEA-infographic-final

 

 

ডিজিটাল কন্টেন্টঃ

ডিজিটাল কন্টেন্ট ক্রেতাদের সিদ্ধান্তের উপর অনেক প্রভাব ফেলে । ফিলিপাইনে , 34% অনলাইন ক্রেতারা কেনার আগে অনলাইন কন্টেন্টকে প্রাধান্য দেয় । যায় হোক , অনালাইনে খুচরা পণ্যের প্রবেশ মাত্র 1.2% । অনলাইন ক্রেতারা মোবাইলে প্রোডাক্টের প্রচুর ভিডিও দেখে থাকে ।

টপ প্রোডাক্ট ক্যাটাগরিসঃ

টপ প্রোডাক্ট ক্যাটাগরিস এর মধ্যে ছিল পোশাক এবং পাদুকা (24%) এবং ভ্রমন (18%) ।

সিরিয়াস অনলাইন ক্রেতারা:

৩১ মিলিয়ন মানুষ অনলাইনে কেনা কাটার ব্যাপারে অনেক সিরিয়াস । তাদের মধ্যে ১৮ মিলিয়ন শহরে বাস করে ; আর ১৩ মিলিয়ন শহরের বাইরে থাকে । এই ক্রেতারা নিয়মিত পন্য অনলাইনে সার্চ করে থাকে ।

৯ লক্ষ নারী ক্রেতারা যারা শহরে থাকে , বিউটি প্রোডাক্ট বেশী কিনে ।

৩৬ বছরের উপর মানুষরা গবেষণা করে আর অনলাইনে টিকিট কিনে ,

মোবাইল ফার্স্ট ন্যাশনঃ

বড় বড় শহরগুলোর বাইরে , মোবাইল ডিভাইস থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করে ।। থাইল্যান্ডে 85% শহরের বাইরের মানুষ অনলাইনে কেনাকাটার জন্য স্মার্টফোন ব্যবহার করে । দক্ষিনপূর্ব এশিয়ায় ২৫০ মিলিয়নের বেশী মানুষ স্মার্টফোন ব্যবহার করে ।

খণ্ডিত বাজার:

দক্ষিনপূর্ব এশিয়ার ক্রেতারা বিভিন্ন সাইট থেকে কেনে । কোন দেশের ইকমার্স সাইটে 20% এর বেশী ক্রেতা নেই । সিঙ্গাপুরে ১২ টি ইকমার্স প্রতিষ্ঠান ৯০% মার্কেট নিয়ন্ত্রন করছে ।

যখন কোন প্রোডাক্ট বিষয়ে সার্চ করার দরকার হয় , তখন প্রথমে সার্চ ইঞ্জিনে যায় । তারা সরাসরি নির্দিষ্ট ইকমার্স সাইট বা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে যায় না ।

সামাজিক মিডিয়া:

80% ডিজিটাল ক্রেতারা এই অঞ্চলে সামাজিক মাধ্যমে ফটো শেয়ারিং , মেসেজ এর জন্য বেশী ব্যবহার করে ।দক্ষিনপূর্ব এশিয়াতে ৩০% বেশী অনলাইন কমার্স সামাজিক মাধ্যমকে কেন্দ্র করে চালিত হয় ।

প্রতিষ্ঠান উপর অভিজ্ঞতা:

দক্ষিনপূর্ব এশিয়াতে অনলাইন ক্রেতারা আকর্ষণীয় পণ্য দেখে কিনে না ; তারা অভিজ্ঞতা এবং পছন্দকে প্রাধান্য দেয় ।

ডোর-টু-ডোর ডেলিভারিঃ

ক্যাশ অন ডেলিভারি সবচেয়ে পছন্দের মাধ্যম ।

চ্যালেঞ্জঃ
———
জাতিগত বৈচিত্র্যতা:

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতে বেশী পরিমানে জাতিগত বৈচিত্রতা দেখা যায় । তাদের নিজস্ব ভাষা আছে , উপ-সংস্কৃতি আছে । ইকমার্স কোম্পানিগুলোকে এই ঐতিহ্যগুলোকে ভাল করে বুঝতে হয় ।

স্থানীয় আইন:

অনেক দেশে এই সেক্টরে 100% বিদেশী বিনিয়োগ সমর্থন করে না । যেমন, ইন্দোনেশিয়া ।

অবকাঠামো:

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এই অনলাইনে পেইমেন্ট এবং লগিস্টিক সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ । সেখানে ভাল কোন পেইমেন্ট অপশন নেই । গ্রামের বা শহরের বাইরে রাস্তাঘাট উন্নত না , অনেক জায়গায় রেলওয়ে নেই । প্রোডাক্ট ডেলিভারি বড় একটা চ্যালেঞ্জ ।

অনেক মানুষ অনলাইনে প্রোডাক্ট কিনতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে না । তারা প্রথাগত ফিজিক্যাল মার্কেট থেকে প্রোডাক্ট কিনতে বেশী উৎসাহবোধ করে , কারন তারা প্রোডাক্ট সামনে থেকে দেখতে পারে ।

Kantar TNS’s “Connected Life 2016”

মার্কেট রিচার্জ গ্রুপ Kantar TNS এর বার্ষিক সমীক্ষায় “Connected Life 2016” সামাজিক মাধ্যমগুলোতে মানুষের আচরণ এর উপর গুরত্ব দেয় । এই সমীক্ষা ৫৭ টি দেশে ৭০,০০০ মানুষের উপর জরিপ করা হয়েছিল ।

এই সমীক্ষায় ছবি এবং ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ্সগুলোতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ইকমার্সের জন্য বড় একটা সুযোগ নিয়ে এসেছে । এই ধরনের প্লাটফর্ম ব্যবহার করে সহজে ব্র্যান্ড তৈরি করা যায় ।

অনেক মানুষ ভিজুয়াল কন্টেন্ট বেইজড প্ল্যাটফর্মে যেমন ফেইসবুক থেকে ইনস্টাগ্রাম এবং Snapchat এর দিকে ঝুঁকছে ।

 

SG-Connected-Life_Brands-on-social-infographic-1024x310

Instagram

মালয়শিয়া থেকে 73% মানুষ Instragram ব্যবহার করে , যা এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে সর্বোচ্চ ।
গত দুই বছরে সিঙ্গাপুর থেকে স্মার্টফোন থেকে instragram ব্যবহারের সংখ্যা বেড়েই চলেছ । ২০১৪ সালে Instragram ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল 51% ; ২০১৬ সালে ছিল তা 63%।

সিঙ্গাপুরে , 33% ব্যবহারকারী 55-65 বয়সের মধ্যে ।
ইন্দোনেশিয়ার অর্ধেক মানুষ instragram ব্যবহার করে ।

Snapchat:

মালয়শিয়া এবং সিঙ্গাপুর থেকে 37% মানুষ snapchat ব্যবহার করে ।

ইন্দোনেশিয়াতে এই snapchat ব্যবহারকারির সংখ্যা মাত্র 9% ।

সিঙ্গাপুরে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর মধ্যে ১০% মানুষ snapchat ব্যবহার করে ।

ক্রেতারা সরাসরি ব্র্যান্ডিং পছন্দ করে না । কাজের সময় বাঁধা বিঘ্ন তারা পছন্দ করে না ।

২০১৭ সালের দক্ষিনপূর্ব এশিয়াতে ইকমার্স প্রবাহঃ

ই-কমার্স দানবীয় যুদ্ধঃ Alibaba বনাম Amazon :

চায়নার ইকমার্স মার্কেট দিন দিন বড় হচ্ছে । আমিবাবা চায়ানার বাইরে তাদের মার্কেট প্রসার করতে চাচ্ছে । গত বছরের এপ্রিলে , চায়নার এই ইকমার্স দানব পন্য সরবরাহ নিয়ন্ত্রনের জন্য Lazada group এর সাথে ১ বিলিয়ন ডলার চুক্তি করেন । Lazada group ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের তাদের সার্ভিস প্রদান করে । Lazada অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বিভিন্ন ধরনের পন্য বিক্রয় করে থাকে ।

চায়না ইকমার্স দানবের সাথে Lazada এর সাথে সম্পর্ক বিশেষ এক ইঙ্গিত দেয় । এই থেকে বুঝে যায় , দক্ষিন পূর্ব এশিয়াতে তাদের ব্যবসা প্রসার করতে আগ্রহী ।

Tech Cruch এক রিপোর্টে বলে , এমাজনেরও দক্ষিন পূর্ব এশিয়াতে তাদের বাজার বিস্তৃতি করতে যাচ্ছে । সিঙ্গাপুরে তাদের অফিস স্থাপন করবে । এমেরিকান ইকমার্স কোম্পানি ট্রাক কিনছে , অফিস , কর্মচারী নিচ্ছে । অক্টোবরে , চায়নাতে এই কোম্পানি Prime free shipping service টি চালু করতে পারে ।

Change in Payments and Logistics:

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে অনলাইন ক্রেতাদের ক্যাশ অন ডেলিভারি সবচেয়ে পছন্দের মাধ্যম । তাদের ক্রেডিট কার্ড আছে , কিন্তু তারা এই ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের প্রতি তেমন কোন আগ্রহ নেয় ।

COD (cash on delivery ) পেইমেন্ট মেথডের জন্য পেইমেন্ট মেথডের জন্য নির্ভরযোগ্য মাধ্যম না । ইকমার্সের বৃদ্ধিতে COD এর ধারা চলে যেতে হবে । ইতিমধ্যে ব্যাঙ্কস , মোবাইল নেটঅয়ার্ক সহ বিভিন্ন স্টার্ট আপ পেইমেনট সলিউশন প্রদান করছে ; যেমন , প্রি-পেইড কার্ড, মোবাইল ওয়ালেট, ই-ওয়ালেট । সরকার এখন Fintech কে সাপোর্ট দিচ্ছে । ২০১৭ সালে , অনেক fintech স্টার্টআপ দেখা যাবে ।

আলিবাবার এই অঞ্ছলে প্রবেশ করলে পেমেন্ট অবস্থা এবং লগিসটিকে প্রচুর পরিবর্তন ঘটবে । আলিপেই এর প্যারেন্ট কোম্পানি Ant financial এর বিস্তৃতির লক্ষ্যে কাজ করা শুরু করছে । Thailand’s Ascend Money এবং Singapore’s M-Daq এ বিনিয়োগ করেছে । Alibaba এর Cainiao নেটওয়ার্ক এই অঞ্ছলে আরও কিছু বিনিয়োগ করবে ।

More shutdowns, acquisitions and mergers:

২০১৬ সালে অনেক ইকমার্স স্টার্ট আপ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল আবার অনেক কোম্পানি বড় বড় কোম্পানির অধিগ্রহণে চলে যেতে হয়েছিল । Rocket Internet’s Zalora কে Thai Retail Conglomerate Central Group কিনে নিয়েছিলো , Singapore’s online grocery store Redmart কে Lazada কিনে নিয়েছিল । Rakuten সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ার মার্কেটপ্লেস বন্ধ করে দিয়েছে এবং এটির ইকমার্স সাইট Tarad এর মালিকের কাছে বিক্রয় করে দিয়েছে , এই বছরও অনেক স্টার্ট আপ বন্ধ হয়ে যাবে , অনেক কিছু অধিগ্রহন ও একত্রীকরণের ঘটনা ঘটবে ।

VC funding (Venture capital) will be tough ঃ

ইকমার্সকে কেন্দ্র করে প্রচুর উত্তেজনা বিরাজ করছে । এখন পর্যন্ত , দক্ষিন এশিয়ায় ইকমার্স কোম্পানি বড় অঙ্কের vc ফান্ডিং পেয়েছে । Jefferies এর মতে , ASEAN এ ইকমার্সে ইন্ডাস্ট্রি তে 68% টোটাল vc ফান্ডিং আছে । ইকমার্স বাজার বাড়াতে সহায়তা করলেও প্রচুর লোকসানের সম্মুখীন হয়েছে , কিন্তু আর না । ২০১ সালের তুলনায় এই বছর , অর্থায়ন করার হার কমে গিয়েছে , এই বছরও এটি অব্যাহত থাকবে । তাই এই বছর ফান্ডিং পাওয়া অনেক কঠিন হবে । প্রফিটের অঙ্কটা ইকমার্স কোম্পানির জন্য বিনিয়োগকারিদের খুব একটা আকর্ষণ করছে না ।

কৌশল পরিবর্তনঃ

এই অঞ্চলে আলিবাবা , এমাজন এই অঞ্চলে আসার সাথে সাথে স্থানীয় ইকমার্স প্লেয়াররা তাদের কৌশল পরিবর্তন করেছে । প্রোডাক্ট সেল করার পাশাপাশি আরও কিছু সার্ভিস , অফার প্রদান করছে । তারা বিভিন্ন ধরনের প্রডাক্ট এবং মার্কেট নিয়ে কাজ করছে । প্রাথমিক ভাবে , MatahariMall ইন্দোনেশিয়ার ইকমার্স সাইট Lazada এর সাথে প্রতিযোগিতায় নেমেছে এবং তাদের পন্য অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রি করা শুরু করেছিল । এখন তারা অনলাইন থেকে অফলাইনের দিকে চেষ্টা করছে ।

একই দিনে ডেলিভারিঃ

অনলাইন ক্রেতা বৃদ্ধি পাবার সাথে সাথে ডেলিভারিটাও গুরত্বপূর্ণ ব্যাপার হয়ে উঠেছে । সমিক্ষায় দেখা গিয়েছে , এই অঞ্চলে অনেক ক্রেতা একই দিনে ডেলিভারি পেতে বাড়তি টাকা দিতে রাজি আছে , যদি প্রোডাক্ট জরুরিভিত্তিতে দরকার হয় । এই অঞ্চলে অনেক লগিসটীক সেবা প্রদানকারীরা এবং অনলাইন মার্কেটপ্লেস অনেক সীমাবদ্ধতা স্বত্বেও একই দিনে ডেলিভারি দিচ্ছে ।

গুগল এবং ফেসবুকের প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হবে:

আলিবাবার নিজের কিছু প্লাটফর্ম আছে , যেমন Alimama Taobao Affiliate Network, TANX (Taobao Ad Network and Exchange), এবং Data Management Platform. Lazada merchants তারা এই প্লাটফর্মে প্রবেশ করবে । তখন বিজ্ঞাপনের দিক থেকে আলিবাবার সাথে গুগল এবং ফেসবুকের সাথে ভালো একটা প্রতিযোগিতা হবে ।

ক্রেতাদের কাছে সরাসরি বিক্রিঃ

২০১৭ সালে বড় বড় অনলাইন মার্কেটপ্লেস অনলাইলনে তাদের প্রোডাক্ট বিক্রি বন্ধ করে দিয়ে সরাসরি ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করা শুরু করবে । অনলাইন মার্কেটপ্লেস বিশাল বড় কাস্টমার নিয়ে কাজ করে , কিন্তু দীর্ঘদিনের জন্য এই ব্যবসা কাজে আসে না । অনলাইন মার্কেটপ্লেস তাদের ভিজিটর , ক্রেতাদের কেনার সময় , ব্রাউজিং , স্থান এগুলো সংগ্রহ করবে । এগুলোর ভিত্তিতে , মার্কেটপ্লেস হয়তো প্রোডাক্ট সংগ্রহ করে নিজেদের নামে বাজারে ছাড়তে পারে ।

সেবা অনলাইনে বিক্রয়:

প্রোডাক্ট বেইজড ইকমার্সে অনেক প্রতিযোগীতা বাড়ছে আর বিনিয়োগ প্রচুর লাগে । তাই ইকমার্স কোম্পানিগুলো হেলথকেয়ার , ট্রাভেল এইগুলোর দিকে ঝুকছে ।

মায়ানমারঃ

মায়ানমারে এই বছর প্রচুর ইকমার্স কোম্পানি দেখা যাবে । এই দেশে ফেইসবুকের ১০ লক্ষ ব্যবহারকারি আছে , ৫৩মিলিয়ন জনসংখ্যার মধ্যে ২০% ইন্টারনেট ব্যবহারকারী । তারা মোবাইল থেকে ইন্টারনেট বেশী ব্যবহার করে । ২০১২ সাল থেকে রকেট ইন্টারনেট তাদের ব্যবসা শুরু করছে । এই বছর অনেক ইকমার্স প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে ।

on-demand service গুলো বন্ধ হয়ে যাবেঃ

গত বছর অনেক অন ডিমান্ড সার্ভিস বন্ধ হয়ে গিয়েছিলো , এই বছরো তাই হবে ।

অমনিচ্যানেলঃ

অমনিচ্যানেল ইকমার্সে অনলাইন বা অফলাইনের মাধ্যমে বিক্রেতাদের সাথে ক্রেতাদের একটা সম্পর্ক বজায় থাকে । দক্ষিনপূর্ব এশিয়াতে এটি শুরু হয়েছে , আস্তে আস্তে আরো বড় হবে । সিঙ্গাপুর ভিত্তিক ইলেক্ত্রিনিক্স বিক্রেতা Challenger, ৫০টি দোকান আছে , তারা অমনিচ্যানেল ইকমার্সে ও প্রবেশ করেছে । ক্রেতারা Challenger থেকে অনলাইন থেকেও কিনতে পারে , আবার স্টোরে যেয়েও কিনতে পারে , কেনার পর তাদের পর তাদের পণ্য বাসায় পৌঁছে দেয়া হয় । Singapore Post এই বছরে মাঝামাঝি এই ধরনের কাজ শুরু করতে পারে ।

মার্কেটিং অটোমেশনঃ

ইকমার্স বৃদ্ধির সাথে সাথে , এই বছর মার্কেট অটোমেশনও গুরুত্ব পাবে । এই মার্কেট অটোমেশনের মাধ্যমে বিক্রেতারা ক্রেতাদের ডাটা নিয়ে তাদেরকে টার্গেট করতে পারবে , এবং নতুন নতুন অফার দিতে পারবে । পাশাপাশি বিক্রয় আরও বাড়বে ।

বিলাস পণ্য অনলাইনে বিক্রিঃ

অনেক অফলাইন বিলাসবহুল ব্র্যান্ড তাদের পণ্য উপস্থাপন করার গুরুত্ব বুঝতে পারছে । তাই , তারা অনলাইনে স্টোর খুলে দামি বিলাশবহুল পন্য বিক্রয় করা শুরু করেছে । এই বছর এই ধারা অব্যাহত থাকবে ।

সামাজিক কমার্স:

Bain & Co research এ ইতিমধ্যে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় সামাজিক নেটওয়ার্কের প্রচুর জনপ্রিয় হচ্ছে । এটি এখন বড় ধরনের অনলাইন চ্যানেলে পরিণত হয়েছে । এই অঞ্চলের তরুণরা ফেসবুক, Instagram সহ অন্যান্য সামাজিক প্লাটফর্ম ব্যবহার করে । ইতিমধ্যে , অনেক কোম্পানি সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে তাদের সার্ভিস পরদান করছে । ২০১৭ সালে এই ধারা আরও বাড়বে বলে ধারনা করা হচ্ছে ।

 

 

translated from : http://blog.ecerd.com/southeast-asia-e-commerce-trends-2017/

 

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ইকমার্সের ট্রেন্ড 2017