সাইলাস মার্নার রিভিউ

Silas Marner: The Weaver of Raveloe , ১৯৮১ সালে প্রকাশিত George Eliot এর তৃতীয় নভেল । এল লিনেন তাঁতি কে কেন্দ্র করে এই নভেল , বাস্তবতার উপর ভিত্তি করে করে ধর্ম , সম্প্রদায় থেকে শিল্পায়ন পর্যন্ত বিভিন্ন সমাজের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলকপাত করা হয়েছে ।

Plot summary

19 শতকের প্রথম দিকের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই নভেল । Silas Marne একজন তাঁতি , Lantern Yard এর ছোট ক্যালভিনিস্ট মণ্ডলীর একজন সদস্য । Northern England এর নামবিহীন এক শহরের ব্যস্ত রাস্তা । অসুস্থ ডেকনকে তিনি দেখতে গেলে , তিনি সঙ্ঘের ফান্ড থেকে মিথ্যা চুরির দায়ে অভিযুক্ত হন । Silas এর বিপক্ষে দুইটি প্রমাণ দাড়া করানো হয় , একটি পকেট ছুরি , আরেকটি তাঁর বাসায় ব্যাগ রাখা কিছু টাকা । সবচেয়ে বড় ব্যাপার হল , তাঁর বিশ্বস্ত বন্ধু William Dane তাঁকে ফাঁসিয়েছে । কিন্তু সাইলাস ঘটনার কিছুক্ষন আগে তাঁর পকেট ছুরি উইলিয়ামকে ধার দিয়েছেন । সাইলাস দোষী সাব্যস্ত করা হয় । যে নারীর সাথে বিয়ে হবার কথা ছিল , তিনি তাদের বাগদান ভেঙ্গে উইলিয়ামকে বিয়ে করেন । সাইলাস ভেঙ্গে পরেন , পরে এই শহর থেকে চলে যায় ।

Marner দক্ষিন থেকে ভ্রমণ করে Midlands এ আসে । Warwickshire এর Raveloe এ এক গ্রামে তিনি স্থায়ী হন । সেখানে তিনি একা থাকেন , আসে পাশের খুব কম মানুষ তাঁকে চিনে , তিনি এখানে স্বর্ণগুলোকে দেখতে এসেছেন , তাঁত থেকে তিনি এগুলো পেয়ছিলেন ।

স্বর্ণগুলো Dunstan (“Dunsey”) Cass চুরি করেছিল , শহরের অন্যতম জমিদার Squire Cass এর উচ্ছৃঙ্খল ছেলে । সাইলাস বেদনায় বিপর্জস্ত হয়ে পরেন , গ্রামের কিছু মানুষ তাঁকে সাহায্য করার চেষ্টাও করেছিল । Dunsey গায়েব হয়ে যায় , এটি তাঁর সাধারণ কাজ না , সে চুরি করে কোন প্রমানও রেখে যায় নি ।

Godfrey Cass , Dunsey এর বড় ভাই ও তাঁর গোপন আশ্রয় । Godfrey Cass বিবাহিত , কিন্তু Molly Farren থেকে দূরে থাকেন , মহিলাটি আফিম আসক্ত শহরে নিচু বংশে তাঁর জন্ম । এই গোপন বিষয়টি , Godfrey কে Nancy Lammeterকে বিয়ে করা থেকে বিরত রাখে , Nancy Lammeter উচ্চ বংশের সংস্কারসম্পন্ন নারী । এক শীতের রাতে , মলি Squire Cass এ কাছে যাবার চেষ্টা করেন । তখন নতুন বছরের পার্টি চলছিলো । দুই বছরের মেয়েকে সাথে নিয়ে তিনি বলে , তিনি Godfrey এর স্ত্রী , তাঁকে সর্বনাশ করে ছাড়বে । আসার পথে , সে আফিম খেয়ে , বরফের উপর পরে থাকে । বাচ্চা যে ছিল সে ঘুরতে ঘুরতে সাইলাস বাড়ি যায় । সাইলাস সেই বাচ্চা মেয়েকে অনুসরণ করতে গিয়ে দেখে মহিলা মারা গিয়েছে । যখন তিনি পার্টিতে সাহায্যের জন্য যায় , Godfrey এগিয়ে আসে , কিন্তু বলেন নি যে মলি তাঁর স্ত্রী । মলির মৃত্যু বিয়েটা সুবিধাজনক ভাবে সমাপ্তি টেনে আনে ।

সাইলাস এই মেয়েকে নিজের কাছে রাখে , নাম দেয় , Eppie . মা , বোনের মৃত্যুর পর , Eppie সাইলাসের জীবনকে পালটিয়ে দেয় । সাইলাস তাঁর স্বর্নকে ডাকাতি করে এনেছে , কিত্নু সেটি স্বর্ণকেশি এই মেয়ের রুপে এসেছে । Godfrey Cass এখন Nancy কে বিয়ে করতে কোন অশুবিধা নেই , কিন্তু আগে বিয়ের কথা এবং সন্তানের কথা গোপন রাখে । যায়হোক , Eppie কে দেখার জন্য তাঁকে কিছু টাকা পয়সা পাঠিয়ে দেয় । কিন্ত সবচেয়ে বেশি সাপোর্ট পায় সে Marner এর প্রতিবেশী Dolly Winthrop এর কাছ থেকে । Dolly এর সাহায্যে শুধু মারনার এপিকে বড় করে তুলতে সাহায্য করে নি , তারা এই গ্রামের সমাজে নিজদেরকে প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছে ।

১৬ বছর পার হয়ে গিয়েছে । এপি এখন গ্রামের গর্ব । সাইলাস সাথে তাঁর আত্মিক বন্ধন , তাঁর কারনেই এই গ্রামে সে নিজের জায়গা পেয়েছে , নিজের জীবনের উদ্দেশ্য খুঁজে পেয়েছে । একই সময়ে , Godfrey এবং Nancy তাদের সন্তান হয় নি , সেই জন্য দুঃখ প্রকাশ করতে থাকে । অবশেষে , সেই স্বর্ণের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে । পাথরের কুপে Dunstan Cass এর মৃতদেহের সাথে এই স্বর্ণগুলো আটকে ছিল । সাইলাস কাছে যথাযথ টাকাগুলো চলে যায় , এই ধরনের ঘটনায় আঘাত পেয়ে Godfrey ন্যান্সির কাছে স্বিকার করেছে , মলি তাঁর প্রথম স্ত্রী , এপি তাঁর সন্তান । তারা মেয়েকে সাথে নেবার জন্য চেষ্টা করে , কিন্তু এর অর্থ , সাইলাসকে ভুলে যেতে হবে । এপি এই অফারে অস্বীকার করে বলে যে , ” তাঁকে ছাড়া আমার জীবনের কোন আনন্দ নেয় । ”

সাইলাসের পরে আবার Lantern Yard দেখতে বের হন । কিন্তু তাঁর আগের জায়গা নেয় , এখন সেখানে বড় একটি ফ্যাক্টরি । কেউ দেখে বলবে না এখানে আগে মানুষ থাকতো । যায়হোক , সাইলাস এখন তাঁর পরিবার , বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে সুখে জীবন কাটায় । পরে ,এপি স্থানীয় এক ছেলে ডলির সন্তান AAron কে বিয়ে করেন । Godfrey এর সৌজন্যে Aaron এবং এপি সাইলাসের নতুন ঘরে চলে আসে । সাইলাস এই এপির প্রতি স্নেহ , কাজ সবাইকে আনন্দ দেয় , পরে পরিবারের সবাই এর আনন্দ পায় ।

Major themes

সাইলাস মারনারের প্রধান থিম হলো , ” বিশুদ্ধ , প্রাকৃতিক মানব সম্পর্ক ” কিন্তু সেখানে আরও অনেক কিছু আছে । এগুলোর মধ্যে অনেক বিষয় সরাসরি ফুটিয়ে তোলা হয় নি , কিন্তু একই পুনঃরাবৃতিতে পাঠকের নজর কেড়েছে , নভেলের শেসে তাদের সমাপ্তি টানা হয়েছে । এগুলোর মধ্যে একটি থিম ছিল , সমাজে ধর্মের কাজকর্ম । আরেকটি হল , প্রথা এবং ঐতিহ্য । nancy চরিত্রের মাধ্যমে মানব সম্পর্কের মধ্যে সহানুভূতিকে প্রাধান্য দেয়া উচিৎ । এটি মানুষের জীবনে প্রশ্রয় এবং নিয়ম শৃঙ্খলার মধ্যে প্রশ্ন তৈরি করে দেয় । আরেকটি থিম পরোক্ষভাবে রুপায়িত করার চেষ্টা করা হয়েছে , সেটি হল , মারনার ১৯ শতকের ইংরেজদের শিল্পায়নের একজন ভুক্তিভোগী । Lantern Yard যেখানে পরে ফ্যাক্টরি বানানো হয় , সেটি অন্ধকার , নোংরা জায়গা ছিল । এর মাধ্যমে Lantern Yard এর মানুষ এবং Raveloe এর কমিউনিটির মধ্যে অসামঞ্জস্যের কথা ফুটিয়ে উঠিয়েছে । ইলিয়ট , সাইলাস মারনার এর মাধ্যমে আশা এবং ভালোবাসার সমিল্লনের মাধ্যমে এক প্রতিমূর্তি দাড়া করিয়েছেন । এই বইয়ে শক্তিশালী দুইটি চরিত্র রয়েছে , এক দিকে দুশ্চরিত্র Dunstan Cass এবং অন্যদিকে দয়াশীল Silas Marner। ধর্ম এবং ধর্মীয় ভক্তি ব্যাপারটি Eliot এর লেখায় শক্তিশালী ভাবে প্রকাশ পেলেও , শাস্ত্র এবং কমিউনিটির মধ্যে পারস্পরিক নির্ভরশীলতার বিষয়ে উদ্বেগের বহিঃপ্রকাশও করেছে ।

 

source : https://en.wikipedia.org/wiki/Silas_Marner

 

সাইলাস মার্নার রিভিউ : silas Marner wiki In Bangla